কাল্পনিক কল্পনা গুনিজন কহেন পৃথিবী আজব ঘটনা যত অদ্ভুত আবিস্কার 

বিজ্ঞানের আজব আবিষ্কার

বিজ্ঞানীদের বেশিরভাগ গবেষণার বিষয়বস্তু এবং ফলাফল বেশ গুরুগম্ভীর হয়। কিন্তু মাঝে মধ্যে অনেক আবিষ্কার এতই অদ্ভুত হয় যে, অবাক হয়ে যান স্বয়ং বিজ্ঞানীরাই। জীবন বাঁচাতে তেলাপোকা : যে তেলাপোকা অনেকের ভয়ের কারণ হয়, সেই তেলাপোকাই বাঁচাতে পারে মূল্যবান জীবন। জীবন্ত তেলাপোকা ব্যবহার করে বিজ্ঞানীরা তৈরি করেছেন রিমোট কন্ট্রোলড সাইবর্গ ককরোচ। এই সাইবর্গ তেলাপোকার কাজ হবে ভূমিকম্পের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগকবলিত এলাকায় আহত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করা। ব্রিজ টু নোহোয়ার : ডার্ক ম্যাটারের উপস্থিতিটা কেবল তার মাধ্যাকর্ষণ শক্তি দিয়েই খুঁজে পাওয়া যায়। পৃথিবী থেকে ২৭০ কোটি আলোকবর্ষ দূরে দুটি গ্যালাক্সির মাঝে উপস্থিতি…

Read More
বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ভৌতিক স্থাপনা কাল্পনিক কল্পনা ভয়ংকর সব ভুতের গল্প 

Auto Draft

ভৌতিক বিষয়ে আগ্রহ আছে অনেকেরই। ছোটবেলায় ভূত-পেত্নীর গল্প পড়েননি বা শোনেননি এমন মানুষ কমই খুঁজে পাওয়া যাবে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে এমন সব স্থাপনা আছে যা নিয়ে শুধু ছোটদের কেন, ভয় রয়েছে বড়দেরও। এমন কিছু ভৌতিক স্থাপনা সম্পর্কে জানুন। টাওয়ার অব লন্ডন ১৫৩৬ সালে হেনরি ১৭ বা সেভেনটিনের সময়ে এক স্ত্রীলোককে এই টাওয়ারে শিরোচ্ছেদ করা হয়। পরে শোনা যায়, ওই স্ত্রীলোকের আত্মাকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখা যেত। মাঝে মাঝে তার খণ্ডিত মাথা হাতে নিয়ে হাঁটতেও দেখা যায়। টাওয়ার গ্রিন ও টাওয়ার চাপেল রয়েলে হাঁটার কথা বলেছেন অনেকে। বিখ্যাত ভৌতিক স্থান হিসেবে পরিচিত…

Read More
কাল্পনিক কল্পনা 

আশ্চর্য্য জনক সব ঘটনা!!!

  আমাদেরকে অবাক করে দেয় আমাদের চারপাশের ঘটে যাওয়া অনেক অদ্ভুত ঘটনা । মানুষের নখ যে গতিতে বাড়ে একই গতিতে উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপ পরস্পর হতে সরেযাচ্ছে দূরে । মহাবিশ্বে সবচেয়ে শীতলতম স্থানহিসেবে বিবেচিত পরম শূন্যের চেয়ে ১ ডিগ্রীর মত উপরেরবুমেরাং নেবুলা। ভূতাত্ত্বিক কারণে প্রতিবছর প্রায় দুই ফুট করে বাড়ে এভারেস্টের উচ্চতা। ১৮১২ সালে ৮.৬ মাত্রার একটি ভূমিকম্পের প্রভাবে মিসিসিপি নদী কয়েক ঘন্টার জন্য উল্টোদিকে প্রবাহিত হয়। ছাদ থেকে লাফিয়ে আত্নহত্যা করার চেষ্টাকারির শাস্তি মৃত্যুদন্ড যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। পৃথিবীর সবচেয়ে মূল্যবান বা দামী পানি হল হাওয়াইয়ের গভীর সমুদ্র তলদেশ থেকে তুলেসবচেয়ে…

Read More
"তোমার ছেড়ে যাওয়া, এবং আমি!" একটা গল্প, অনুপ্রেনার গল্প! বদলে দিতে পারে আপনার জীবন! বাংলাদেশের প্রথম সাদাকালো স্থির চিত্র স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র! ভিডিও আঁকারে এবং নিচে সম্পুর্ন স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র-টির লিরিক্স দেওয়া হল। ( টাইটেলঃ "তোমার ছেড়ে যাওয়া, এবং আমি! একটা অনুপ্রেনার গল্প! স্থির চিত্র স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র!" ) অদ্ভুত সব চিত্র অন্ধকার প্রেম কাহিনী কাল্পনিক কল্পনা জীবনের গল্প ফটো গ্যালারি ভালবাসার গল্প মুভি - ছবি ডাউনলোড 

তোমার ছেড়ে যাওয়া, এবং আমি! একটা অনুপ্রেনার গল্প! স্থির চিত্র স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র!

“তোমার ছেড়ে যাওয়া, এবং আমি!” একটা গল্প, অনুপ্রেরনার গল্প! বদলে দিতে পারে আপনার জীবন! বাংলাদেশের প্রথম সাদাকালো স্থির চিত্র স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র! ভিডিও আঁকারে এবং নিচে সম্পুর্ন স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র-টির লিরিক্স দেওয়া হল।  ( টাইটেলঃ “তোমার ছেড়ে যাওয়া, এবং আমি!  একটা অনুপ্রেরনার গল্প! স্থির চিত্র স্বল্পদৈর্ঘ চলিচিত্র!” )  —- তোমার ছেড়ে যাওয়া, এবং আমি!  এক মুহুর্তেই ভুলে গিয়েছিলে আমাকে! যখন তুমি আমায় ছেড়ে চলে গিয়েছিলে, তখন আমার কেমন লেগেছে, বুঝাতে পারবো না। কিন্তু আমি! হারিয়ে গিয়েছিলাম অন্ধকারে! আমার চোখের জ্বল তোমার কাছে হয়ে গিয়েছিল মূল্যহীন!  একটি বারের জন্যও তোমাকে মনে করাতে পারনি পুরন…

Read More
কাল্পনিক কল্পনা 

আসুন তৈরী করি ব্যাটারী চার্জিং লেভেল আর ব্যবহার করি যেকোন যন্ত্রে (খুব সহজে)

আসুন তৈরী করি “ব্যাটারী চার্জিং লেভেল” আর ব্যবহার করি যেকোন যন্ত্রে (খুব সহজে) আমাদের আনেকের মনে হয় এমন যদি হতো আমাদের কাছে একটা ব্যাটারী চার্জিং লেভেল থাকতো!!! হয়তো আপনি এই সার্কিট আপনি খুজছেন…………. —- মূলকথাঃ ইলেকট্রনিক্স প্রিয় সকলকে জানাই অভিনন্দন। আজ আপনাদের সাথে আমি এমন একটি মজার ব্যাটারী চার্জিং লেভেল সার্কিটের সাথে পরিচয় করিয়ে দেব যা আপনাদের অনেকের কাজে আসবে বলে আমি আশা রাখি। অনেক সময় আমরা ভাবি আমাদের ব্যবহৃত বিভিন্ন ব্যাটারির (9V বা 12V) ব্যাটারী চার্জিং লেভেল যদি আমরা জানতে পেতাম? এটা আমরা জানতে পারলে সহজেই বুঝতে পারবো আইপিএস…

Read More
অ্যাপলের দুটি প্যাটেন্ট নকল করার অভিযোগে দক্ষিণ কোরিয়ার আরেক প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং ১১ কোটি ৯৬ লাখ ডলার জরিমানা! অর্থাৎ স্যামসাংকে আবারও ১১৯ মিলিয়ন ডলার পরিশোধ করতে হবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলকে। তিন বছর ধরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অ্যাপল ও স্যামসাংয়ের বিভিন্ন বিষয়ে মামলা চলছে। http://www.technobuffalo.com/wp-content/uploads/2012/11/apple-vs-samsung-court-011.jpg এর মধ্যে ভিডিও আদান প্রদান ও মোবাইলের ক্যামেরা ব্যবহারের বিষয়ে অ্যাপলের বিরুদ্ধে পেটেন্ট আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছে স্যামসাং। স্যামসাং এর দাবী অ্যাপলের আইফোন ফাইভ স্যামসাং গ্লাক্সি-এর ব্লুটুথে আদান প্রদান করার অ্যাপস নকল করেছে। পাশাপাশি আইফোন ফাইভ-এর ক্যামেরার অ্যাপ্স এর আইডিয়াটাও স্যামসাং গ্লাক্সি। ফলে অ্যাপলের আইফোন ফাইভের বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানিয়েছে স্যামসাং। বলা বাহুল্য মোবাইল ফোন কিংবা স্মার্ট ফোন যাই বলি না কেন বিক্রি এবং জনপ্রিয়তার দিক থেকে এখন কোরিয়ার স্যামসাং-ই সবচেয়ে এগিয়ে আছে। অপরদিকে গুগোলের Android এর কল্যানে স্যামসাং-এর স্যামসাং গ্লাক্সিই বলা যায় বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় হ্যান্ডসেট। http://images.dailytech.com/nimage/US_Apple_v_Samsung_Courtroom_Wide.jpg যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলেরও রয়েছে পন্যের মান নিয়ন্ত্রনের উপর বিশেষ সুনাম এবং পাশাপাশি অ্যাপলের ব্রান্ডিং লেভেলও হাই। অপরদিকে অ্যাপলের রয়েছে নিজেস্ব অপারেটিং সিস্টেম ম্যাক ওস! এদিক থেকে অবস্য ম্যাকই এগিয়ে। http://www.technobuffalo.com/wp-content/uploads/2012/11/apple-vs-samsung-court-001-640x480.jpg শেষে একটা ছবির মাধ্যমে স্যামসাং বনাম অ্যাপল এবং সাথে নোকিয়ার বর্তমান পরিস্থিতি স্পস্ট করছি। আর সময় পেলে আমার ব্লগ থেকে ঘুরে আসতে ভুলবেন না! আজ এটুকুই মামলার পরবর্তি রায় নিয়ে আবার ফিরে আসব আশা করছি ততক্ষন পর্যন্ত সবাই ভাল থাকবেন। http://youngblah.com/wp-content/uploads/2012/09/Apple-Vs-Samsung-Vs-Nokia.jpg বর্তমানে স্যামসাং বনাম অ্যাপল যুদ্ধে যখন পৃথিবী তোলপাড় ঠিক এমন সময় নিরবে নিবৃতে যেন নোকিয়ার সব আয়োজনই ব্যার্থ। অথচ তিন-চার বছর পুর্বেই সিমব্রিয়ান অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে নোকিয়াই ছিল সবার সামনে। অন্যান্য এবং আরও কিছু কাল্পনিক কল্পনা গুনিজন কহেন 

মানুষ অদ্ভুত প্রানী। এরা কখনই আপনার ভালো কাজগুলো মনে রাখবে না!

মানুষ অদ্ভুত প্রানী। এরা কখনই আপনার ভালো কাজগুলো মনে রাখবে না। কিন্তু সকল ক্ষেত্রেই এরা আপনার ব্যর্থতার একবর্ণও ভুল করেও ভুলবে না।  সামনে থেকে কথা শোনায়।  পিছন থেকে খোঁচা দেয়।     যদি প্রশ্ন করা হয় কোনটা বেশী সহজ জীবনে যুদ্ধ করা না কি যুদ্ধ না করে হার স্বীকার করা…? উত্তরটা সহজ হার মানা আর সাড়া জীবন আফসুস করা…। আর এই পৃথিবীর বেশির ভাগ মানুষই তাই করে। খুব অল্প কিছু মানুষ জীবন যুদ্ধে অংশগ্রহন করে আর এদের বেশীর ভাগই সফল হয়! । । তাই আমার মতে যুদ্ধটা করেই যাব আর…

Read More

বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ক্রিকেট-ই দিতে পারে একমাত্র স্বস্তি………….

বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্তিতিতে দেশের মানুষের যখন একেবারে দম আটকে যাওয়ার মত অবস্থা,তখন আসছে ক্রিকেট টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০১৪ দেশের মানুষকে দিবে একটু হলেও স্বস্তির প্রয়াস। ক্রিকেট উম্মদনায় আবারো বাসবে বাঙ্গালি জাতি। বড় দুই রাজনৈতিক দলের রাজনৈতিক মাঠ দখলে রাখার প্রতিযোগিতায় যখন দেশের রাজনৈতিক আবহাওয়া এই শীত মৌসুমেও গরম, তখন ক্রিকেট মাঠের প্রতিযোগিতা দেশের রাজনৈতিক আবহাওয়া ঠাণ্ডা করতে না পারলেও দেশের মানুষের মনকে একটু হলেও ঠাণ্ডা করবে।

Read More

খুশির জোয়ারে আবারো ভাসবে বাংলাদেশ।।কারন আসছে ক্রিকেট টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ বাংলাদেশ……………

ক্রিকেট উম্মাদনায় ভাসার জন্য আবারও তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশ।  ১৯৯৯-সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের অভিষেক হয়। এর পর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি বাংলাদেশকে।২০০০-সালে টেস্ট ক্রিকেটের স্ট্যাটাস অর্জন করে বাংলাদেশ দল।সম্প্রতি বাংলাদেশে এবং বাংলাদেশের বাইরে অনুষ্ঠিত সিরিজ ও এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলের  ভালো পারফরমেঞ্চ ভক্তদের মনে  নতুন করে আশা যুগিয়েছে।বাংলাদেশ দল তার ধারাবাহিক ভালো পারফরমেঞ্চের মাধ্যমে দেশের ১৬ কোটি মানুষের পাশাপাশি বিশ্বের লাখো ক্রিকেট ভক্তের মনে আজ জায়গা করে নিয়েছে। আজ বিশ্ব ক্রিকেট এ বাংলাদেশ সম্মানের সাথে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। ২০১১-এ ক্রিকেট বিশ্বকাপ ভারত ও শ্রীলঙ্কার সাথে বাংলাদেশ যৌথ…

Read More
যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! : বিশ্বের অন্যতম একক পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অন্তহীন সমস্যা জর্জরিত ভারতের সম্পর্ক যে সমমর্যাদার ভিত্তিতে নয়, অনেকটা প্রভু আর দাসসুলভ তা ভারত প্রায় ভুলতেই বসেছিল। কিন্তু ভারতের একজন শীর্ষস্থানীয় নারী কূটনীতিককে তার দুই সন্তানের সামনে থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রেফতার করে হাতকড়া পরানো, এরপর বিবস্ত্র করে দেহ তল্লাশি এবং শেষমেশ নেশাখোরদের সঙ্গে কয়েদখানায় নিক্ষেপ করে পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র হয়ত বা সমস্যায় জর্জরিত ভারতকে মনে করিয়ে দিল এ সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! এদিকে অনলাইন নিউজপোর্টাল বিডিনিউজের একটি খবর উল্লেখ না করলেই নয়। ‘দেবযানি কাণ্ডের পেছনে কূটনৈতিক বিরোধ’ শিরোনামে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ‘ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিংয়ের যুক্তরাষ্ট্র সফরের মধ্যেই কূটনীতিক দেবযানি খোবরাগাড়েকে গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত হয়, যার পেছনে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে দুই দেশের মতপার্থক্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বলে মনে করছেন দিল্লির এক কর্মকর্তা। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘সুজাতা সিং ওই সফরে বেশ কয়েকটি স্পর্শকাতর বিষয়ে ভারতের অবস্থান ওয়াশিংটনের সামনে তুলে ধরেন, যার শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের মতপার্থক্যের বিষয়টি। দেবযানিকে গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র আমাদের একটি বার্তা দিতে চেয়েছে, যাতে আমরা ভেঙে পড়ি। এটা বিশ্বাস করার মতো যথেষ্ট কারণও আছে।’ ফ্রিল্যান্সিংয়ের অথবা আঊটসোর্সিং - মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা তিনি জানান, এর আগে রাশিয়ার একাধিক কূটনীতিকের বিরুদ্ধে বীমা জালিয়াতির অভিযোগ উঠলেও মার্কিন প্রশাসন নিউইয়র্ক পুলিশ বা অ্যাটর্নির কার্যালয়কে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেয়নি। দেবযানির বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগের কথা তারা বলছে, রুশ কূটনীতিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তার চেয়ে অনেক বেশি গুরুতর। গৃহকর্মীর ভিসা আবেদনে মজুরি নিয়ে মিথ্যা তথ্য দেয়া এবং তাকে চুক্তি অনুযায়ী পারিশ্রমিক না দিয়ে বেশি কাজ করানোর অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার ভারতীয় কনস্যুলেটের ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানি খোবরাগাড়েকে গ্রেফতারের পর প্রকাশ্যে হাতকড়া পরিয়ে নিয়ে যায় নিউইয়র্কের পুলিশ। থানায় নেয়ার পর ওই কূটনীতিককে বিবস্ত্র করে তল্লাশি চালানো হয় এবং তাকে মাদক চোরাচালানি ও যৌনকর্মীদের সঙ্গে একই কারাকক্ষে রাখা হয় বলে ভারতীয় গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু রাশিয়ানদের ক্ষেত্রে কোনো পদক্ষেপই নেয়া হয়নি। কারণ, তাতে কূটনৈতিক সম্পর্ক নষ্ট হবে বলে মস্কো হুমকি দিয়েছিল। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা বলছেন, নির্বাচন সামনে রেখে বাংলাদেশে রাজনৈতিক সঙ্কটের মধ্যে ভারত সরকার যে অবস্থান নিয়েছে তাতে যুক্তরাষ্ট্র হতাশ (তবুও তারা ক্ষুব্ধ বলতে নারাজ)। এই মতপার্থক্যের বিষয়টি প্রকাশ্য। এ নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। কিন্তু সুজাতা সিং যখন ভারতের অবস্থান স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন, তখনই যুক্তরাষ্ট্র আমাদের এই শক্ত বার্তা দিতে চাইল।’ অন্যান্য এবং আরও কিছু কবিতার বাংলাদেশ কাল্পনিক কল্পনা ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫ গুনিজন কহেন জন্মদিনের উইস করার এসএমএস 

যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ!

যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! : বিশ্বের অন্যতম একক পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অন্তহীন সমস্যা জর্জরিত ভারতের সম্পর্ক যে সমমর্যাদার ভিত্তিতে নয়, অনেকটা প্রভু আর দাসসুলভ তা ভারত প্রায় ভুলতেই বসেছিল। কিন্তু ভারতের একজন শীর্ষস্থানীয় নারী কূটনীতিককে তার দুই সন্তানের সামনে থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রেফতার করে হাতকড়া পরানো, এরপর বিবস্ত্র করে দেহ তল্লাশি এবং শেষমেশ নেশাখোরদের সঙ্গে কয়েদখানায় নিক্ষেপ করে পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র হয়ত বা সমস্যায় জর্জরিত ভারতকে মনে করিয়ে দিল এ সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! এদিকে অনলাইন নিউজপোর্টাল বিডিনিউজের…

Read More
যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! : বিশ্বের অন্যতম একক পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অন্তহীন সমস্যা জর্জরিত ভারতের সম্পর্ক যে সমমর্যাদার ভিত্তিতে নয়, অনেকটা প্রভু আর দাসসুলভ তা ভারত প্রায় ভুলতেই বসেছিল। কিন্তু ভারতের একজন শীর্ষস্থানীয় নারী কূটনীতিককে তার দুই সন্তানের সামনে থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রেফতার করে হাতকড়া পরানো, এরপর বিবস্ত্র করে দেহ তল্লাশি এবং শেষমেশ নেশাখোরদের সঙ্গে কয়েদখানায় নিক্ষেপ করে পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র হয়ত বা সমস্যায় জর্জরিত ভারতকে মনে করিয়ে দিল এ সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! এদিকে অনলাইন নিউজপোর্টাল বিডিনিউজের একটি খবর উল্লেখ না করলেই নয়। ‘দেবযানি কাণ্ডের পেছনে কূটনৈতিক বিরোধ’ শিরোনামে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ‘ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিংয়ের যুক্তরাষ্ট্র সফরের মধ্যেই কূটনীতিক দেবযানি খোবরাগাড়েকে গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত হয়, যার পেছনে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে দুই দেশের মতপার্থক্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বলে মনে করছেন দিল্লির এক কর্মকর্তা। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘সুজাতা সিং ওই সফরে বেশ কয়েকটি স্পর্শকাতর বিষয়ে ভারতের অবস্থান ওয়াশিংটনের সামনে তুলে ধরেন, যার শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের মতপার্থক্যের বিষয়টি। দেবযানিকে গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র আমাদের একটি বার্তা দিতে চেয়েছে, যাতে আমরা ভেঙে পড়ি। এটা বিশ্বাস করার মতো যথেষ্ট কারণও আছে।’ ফ্রিল্যান্সিংয়ের অথবা আঊটসোর্সিং - মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা তিনি জানান, এর আগে রাশিয়ার একাধিক কূটনীতিকের বিরুদ্ধে বীমা জালিয়াতির অভিযোগ উঠলেও মার্কিন প্রশাসন নিউইয়র্ক পুলিশ বা অ্যাটর্নির কার্যালয়কে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেয়নি। দেবযানির বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগের কথা তারা বলছে, রুশ কূটনীতিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তার চেয়ে অনেক বেশি গুরুতর। গৃহকর্মীর ভিসা আবেদনে মজুরি নিয়ে মিথ্যা তথ্য দেয়া এবং তাকে চুক্তি অনুযায়ী পারিশ্রমিক না দিয়ে বেশি কাজ করানোর অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার ভারতীয় কনস্যুলেটের ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানি খোবরাগাড়েকে গ্রেফতারের পর প্রকাশ্যে হাতকড়া পরিয়ে নিয়ে যায় নিউইয়র্কের পুলিশ। থানায় নেয়ার পর ওই কূটনীতিককে বিবস্ত্র করে তল্লাশি চালানো হয় এবং তাকে মাদক চোরাচালানি ও যৌনকর্মীদের সঙ্গে একই কারাকক্ষে রাখা হয় বলে ভারতীয় গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু রাশিয়ানদের ক্ষেত্রে কোনো পদক্ষেপই নেয়া হয়নি। কারণ, তাতে কূটনৈতিক সম্পর্ক নষ্ট হবে বলে মস্কো হুমকি দিয়েছিল। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা বলছেন, নির্বাচন সামনে রেখে বাংলাদেশে রাজনৈতিক সঙ্কটের মধ্যে ভারত সরকার যে অবস্থান নিয়েছে তাতে যুক্তরাষ্ট্র হতাশ (তবুও তারা ক্ষুব্ধ বলতে নারাজ)। এই মতপার্থক্যের বিষয়টি প্রকাশ্য। এ নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। কিন্তু সুজাতা সিং যখন ভারতের অবস্থান স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন, তখনই যুক্তরাষ্ট্র আমাদের এই শক্ত বার্তা দিতে চাইল।’ অন্যান্য এবং আরও কিছু কাল্পনিক কল্পনা ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫ গুনিজন কহেন জন্মদিনের উইস করার এসএমএস সাধারন 

ভারতকে মনে করিয়ে দিল এ সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ!

যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! : বিশ্বের অন্যতম একক পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অন্তহীন সমস্যা জর্জরিত ভারতের সম্পর্ক যে সমমর্যাদার ভিত্তিতে নয়, অনেকটা প্রভু আর দাসসুলভ তা ভারত প্রায় ভুলতেই বসেছিল। কিন্তু ভারতের একজন শীর্ষস্থানীয় নারী কূটনীতিককে তার দুই সন্তানের সামনে থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রেফতার করে হাতকড়া পরানো, এরপর বিবস্ত্র করে দেহ তল্লাশি এবং শেষমেশ নেশাখোরদের সঙ্গে কয়েদখানায় নিক্ষেপ করে পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র হয়ত বা সমস্যায় জর্জরিত ভারতকে মনে করিয়ে দিল এ সম্পর্ক সমমর্যাদার নয় বরং এ সম্পর্ক প্রভু আর দাসসুলভ! এদিকে অনলাইন নিউজপোর্টাল বিডিনিউজের…

Read More