Welcome to MLM NEWS 24, the 1st MLM news site for Bangladesh. ( mlmnews24.com / www.black-iz.com ) . . . ....... | ABOUT | BLOG | SUBCRIBE WITH US |

 



| this news is published by MLM NEWS 24 (mlm.black-iz.com)


ইসলামের দৃষ্টিতে এমএলএম: বিবেচনার কামরুল আলম |

Report From : Dhaka (mlm.black-iz.com)
MLM NEWS 24 : Personal Desk
News of :
News By : Kamrul Alam
News Date : 19th Oct. 2012

এমএলএম সিরিজের একেবারে প্রথম পর্ব থেকেই ‘ইসলামের দৃষ্টিতে এমএলএম’ নিয়ে আলোচনার দাবী উঠলেও ইচ্ছে করেই বিলম্ব করে লিখতে বসলাম। কিছু লোক এমএলএম পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত না জেনেই এটাকে ‘হারাম’ অথবা ‘হালাল’ বলতে কার্পন্য করেননি। পক্ষে এবং বিপক্ষে যথেষ্ট যুক্তি প্রমাণ ছাড়াই বড় বড় গ্রন্থ পর্যন্ত রচনা করে ফেলেছেন অনেকে। তাঁদের অধিকাংশ লেখকের উদ্দেশ্য অনেকটাই এরকম –
ক) এমএলএম-কে হারাম প্রমাণ করতেই হবে
খ) এমএলএম-কে হালাল প্রমাণ করতেই হবে
গ) এমএলএম বিষয়ে বই লিখে কিছু টাকা উপার্জন
ঘ) মানুষকে সঠিক তথ্য জানানো।

 

শেষোক্ত উদ্দেশ্য যাদের রয়েছে বা ছিল সে সমস্ত লেখকদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই আমার আজকের পর্বটি শুরু করছি। বাদ বাকি ভিন্ন উদ্দেশ্যে যারা এমএলএম-কে হারাম বা হালাল বলে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন তাদের ব্যাপারে আপাততঃ নীরবতা পালন করা ছাড়া আমার আর কিছুই করার নেই। শুরুতেই যে বিষয়টি উল্লেখ করতে চাই তা হলো, আমার উদ্দেশ্যটাও মানুষকে সঠিক তথ্য জানানো। তবে সীমিত জ্ঞান নিয়ে আমি তা কতটুকু করতে পারবো জানি না। শুধু এটুকু বলতে পারি, সংক্ষেপে কিছু পয়েন্ট ভিত্তিক আলোচনা থাকবে আমার লেখায়। কুরআন-হাদীসের রেফারেন্স এবং যুক্তি তর্কের সমন্বয়ে রচিত এসব আলোচনা থেকে সচেতন পাঠককে খুঁজে নিতে হবে সঠিক তথ্য। আমি নিজে থেকে এমএলএম ব্যবসা পদ্ধতিকে ‘হারাম’ কিংবা ‘হালাল’ বলে আপাতত উল্লেখ করতে পারছি না। কারণ এর পক্ষে বিপক্ষে যথেষ্ট যুক্তি প্রমাণ দলিল খুঁজে পাওয়া সম্ভব হয়নি এবং বিশেষ করে আমার মতো একজন ক্ষুদ্র ব্যক্তির এতো বড় বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া অনুচিত। ‘হালাল’ অথবা ‘হারাম’ বলে কোন বিষয়কে চিহ্নিত করতে পারেন কেবল মাত্র ইসলামী আইন বিশেষজ্ঞরা।

 

কেন এমএলএম-কে হারাম মনে করা হয়? আসল ঘটনা কী?
১) ভিত্তিগত কারণঃ মাল্টিলেভেল মার্কেটিং বা এমএলএম কোম্পানিগুলোর বিজনেস প্লান ভিন্ন ভিন্ন হলেও প্রায় সবগুলো কোম্পানিতেই নিম্ন স্তরের ডিস্ট্রিবিউটরের কাজের সুবিধা উচ্চ স্তরের ডিস্ট্রিবিউটর বা সদস্যরা ভোগ করে থাকেন। এমএলএম এর ভাষায় এটাকে ‘আপলাইন এবং ডাউনলাইন’ বলা হয়ে থাকে। যারা এমএলএম ব্যবসা পদ্ধতির সাথে কোন দিনই ভাল করে জড়িত হননি তাদের কাছে এ বিষয়টি খুব সহজ বলে মনে হয় এবং তারা এর অস্বাভাবিকতা খুঁজে পান। তাদের বক্তব্য হলো মিস্টার ‘এ’ মিস্টার ‘বি’-কে স্পন্সর করেছে তাই মিস্টার ‘এ’ অবশ্যই কমিশন বা স্পন্সর বোনাস পাওয়ার দাবীদার এ ক্ষেত্রে শরীয়তের কোন বাধা নেই যদি তা শরীয়ত সম্মত কোন ব্যবসা বা পণ্য বিক্রয় জনিত ঘটনা হয়ে থাকে। কিন্তু মিস্টার ‘বি’ যখন নিজে মিস্টার ‘সি’-কে স্পন্সর করছে হতে পারে উক্ত মিস্টার ‘সি’ মিস্টার ‘এ’ এর পরিচিত নন কিংবা এমন কি শত্রুও হতে পারেন অথবা মিস্টার ‘এ’ নিজে জানেনও না যে তার ডাউনলাইনে মিস্টার ‘সি’ জয়েন করেছেন সে ক্ষেত্রেও কোম্পানির নির্ধারিত হারে মিস্টার ‘এ’ কি করে কমিশন পেতে পারেন? এটা শরীয়তের যুক্তিতেই কেবল নয় পৃথিবীর সকল যুক্তিবিদ্যা একত্রিত করলেও অস্বভাবিক ঠেকায়। অথচ এমএলএম পদ্ধতিতে ব্যবসার করার মূল ভিত্তি এটাই। ডাউনলাইনে যত বেশি জনবল বাড়বে এবং তাদের মাধ্যমে যত বেশি পণ্য বিক্রি হবে আপলাইনের লিডার সদস্যরা তত বেশি ইনকাম বা কমিশন পাবে। (যদিও ইউনিলেভেল পদ্ধতিতে ডাউনলাইন যত বড় হয় আপলাইনের ইনকাম ততই কমতে থাকে এবং বাইনারি ও অন্যান্য পদ্ধতিতে ‘পয়েন্ট ফ্লাশিং’ এর মাধ্যমে নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশনের বেশি কাউকেই দেওয়া হয় না। কিন্তু এমএলএম ব্যবসাকে যারা হারাম প্রমাণ করতে চান তারা সাধারণতঃ এস বিষয় আমলে নেন না।

 

আসুন আমরা এখন পর্যালোচনা করে দেখি এখানে প্রকৃত ঘটনাটা কি ঘটে এবং ইসলাম এ সম্পর্কে কি বলে? মাল্টিলেভেল মানেই বহু স্তর আর মার্কেটিং মানে বিপণন বা বাজারজাতকরণ। তাই এমএলএম বা মাল্টিলেভেল ভিত্তিক কোম্পানিগুলো তাদের পণ্য ( এ ক্ষেত্রে কোম্পানির নিজস্ব উৎপাদিত পণ্য না হয়ে ক্রয়কৃত পণ্যও হতে পারে) বিপণনের জন্য স্বাভাবিকভাবেই একটি মার্কেটিং প্লান তৈরি করে থাকে। তারা সেই প্লান অনুযায়ী তাদের মার্কেটিং ডিস্ট্রিবিউটরদের সাথে এই মর্মে চুক্তিবদ্ধ হয় যে, আপনার রেফারেন্সে যারা এখান থেকে পণ্য ক্রয় করবে তাদের কাছে পণ্য বিক্রি করে কোম্পানি যে লাভ করবে তার একটি অংশ আপনাকে দেওয়া হবে এবং পরবর্তীতে আপনার রেফারেন্সকারীদের কেউ যদি আরো রেফারেন্স করে তাহলে সেখান থেকেও আপনাকে লাভের একটি অংশ দেওয়া হবে। কোম্পানিগুলো এ ক্ষেত্রে লভ্যাংশ বা কমিশনের সেই হার পূর্বেই উল্লেখ করে দিয়ে থাকে। এর মানে এই নয় যে, প্রত্যেক ব্যক্তির রেফারেন্স করা সদস্যদের মা্ধ্যমে যত পণ্য বিক্রি হবে তার সবগুলো থেকেই প্রথম ব্যক্তি কমিশন বা লভ্যাংশ পায়। এর একটা নির্দিষ্ট সীমারেখা কোম্পানিগুলো নির্ধারণ করে দেয়। দৈনিক, সাপ্তাহিক, পা্ক্ষিক কিংবা মাসিক সেলস টার্গেটের ভিত্তিতেই এ সীমারেখা নির্ধারিত হয়। কোম্পানি ভেদে এ সীমারেখার ভিন্ন ভিন্ন নাম রয়েছে। যেমন- সাইকেল, চক্র, সিরিজ, রাউন্ড, বোর্ড, সেট, স্টেপ প্রভৃতি। অনেকের ধারণা ডাউনলাইনে জনবল বাড়ালে আপলাইনের ইনকাম কেবল বাড়তেই থাকে, এটা একটি প্রচলিত ভুল ধারণা।

 

ইসলামী শরীয়ত এ রকম পদ্ধতিতে পণ্য বিক্রির ব্যাপারে সরাসরি কোন নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি। তবে ইসলামের শ্রমনীতির আলোকে চিন্তা করলে দেখা যায় একজনের কাজের বিনিময় আরেকজন পেতে পারে না। কুরআন মজীদে আল্লাহ পাক বলেন- ‘‘কোনো মানুষই অপরের বোঝা উঠাবে না। মানুষ ততটুকুই পাবে যতটুকু সে চেষ্টা করে’’ [সূরা আন-নাজম, আয়াত : ৩৮-৩৯]।
এরই সূত্র ধরে ‘এমএলএম’ ব্যবস্থাকে সাধারণতঃ ‘হারাম’ চিহ্নিত করা হয়ে থাকে।

 

এখানে দেখা যায় মিস্টার ‘এ’ সরাসরি মিস্টার ‘বি’-কে স্পন্সর করে কমিশন পাওয়ার পর মিস্টার ‘বি’ মিস্টার ‘সি’-কে স্পন্সর করার কারণে আবারও কমিশন পাচ্ছে এবং এরই ধারাবাহিকতায় মিস্টার ‘সি’ যখন মিস্টার ‘ডি’-কে স্পন্সর করছে তখন মিস্টার ‘এ’ এবং মিস্টার ‘বি’ উভয়ে কমিশন তুলে নিচ্ছে। এ ক্ষেত্রে মিস্টার ‘সি’-কে তারা সহযোগিতা করুক কিংবা নাই করুক। আবার অনেক সময় এর উল্টোটাও ঘটে। যেমন মিস্টার ‘এ’ মিস্টার ‘বি’-কে জয়েন করানোর পর তিনি নিজে মিস্টার ‘বি’ এর নিচে আবার মিস্টার ‘সি’-কে জয়েন করান। এ ক্ষেত্রে মিস্টার ‘বি’ মাঝখান থেকে পরিশ্রম ছাড়া পারিশ্রমিকের মালিক হয়ে যায়।

 

এমএলএম কোম্পানিগুলো বলছে, একজন ডিস্ট্রিবিউটরের নেতৃত্বে এখানে এক একটি সেলস টিম গঠিত হয়। উক্ত সেলস টিম যখন সম্মিলিতভাবে কাজ করে তখন টিমের প্রত্যেকের মধ্যে আনুপাতিক হারে কমিশন বন্টন করা হয়। প্রত্যেক সদস্যের নির্দিষ্ট টার্গেট থাকে । সেই টার্গেট পূরণ হলে সকলেই লাভবান হয় অর্থাৎ এখানে বিষয়টা সম্পূর্ণরূপে একটি ব্যবসা হিসেবে পরিগণিত হয়। কেম্পানিগুলো তাই স্বাধীন পরিবেশক নিয়োগ দিয়ে থাকে তাদের অধীন কোন কর্মকর্তার ক্ষেত্রে এমনটা ঘটে না। এটাকে তাই ইসলামের শ্রমনীতির আওতায় নিয়ে আসার কোন সুযোগ নেই। উদাহরণ স্বরূপ মিস্টার ‘এ’ এবং মিস্টার ‘বি’ উভয়ে এখানে ‘বিজনেস পার্টনার’ এবং তাদের বিজনেস টিম বা সেলস টিমে আরো যারা জয়েন করবেন তারা প্রত্যেকেই পরস্পর পরস্পরের সহযোগী হিসেবে যোগদান করেন। তাই এখানে কেউ কারো বোঝা বহন করে না কিংবা এর কোন প্রয়োজনীয়তাও নেই।

 

এখন আমাদের খুঁজে দেখতে হবে ইসলামে এ ধরনের চুক্তিভিত্তিক ব্যবসা করার সুযোগ আছে কি না?

ন্ত্র।

 

 

Want to say something about this article you? : Post your oepeninon here!

 

If you are interested to BLOGGING about MLM or other you can join with us @ my.black-iz.com

To give your openion about MLMNEWS24 : Please use our Openion box

 

 

 

Thank you again to stay with us, and hope that you will stay forever with BLACK iz, MLM NEWS 24

www.black-iz.com / mlmnews24.com

Increase your company’s popularity by advertise

Increase your company’s popularity by advertise with MLM NEWS 24.

Continue Reading »



Share this page with your friends,. ................Join now @ আমার BLACK iz,. আমার BLOG.

You may also find us on these places,.

vinno Khobor


Loading

  • Advertis with us at only 1-5$, to know more please contact (or click here to read more) @ : 0167-1502396, 01670-257436 !!
    We have more then 30,000 visitors, it is a cheaf deal to increase your populerity reapidly read more or call @ 0167-1502396, 01670-257436 !!
    MLM NEWS 24 is the biggest and the trusted netorking field of Bangladeshi MLM networkers, read more or call @ 0167-1502396, 01670-257436 !!
    We are always waiting for you and our door is always open for you, ADD YOUR COMPANY, ARTICLES, ADDVERTISMENT.and more here.

sss